মমতার পূর্ণ তালিকা আজই

মমতার পূর্ণ তালিকা আজই

বাংলার সামগ্রিক উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে চাই আরও গতি। সেই সঙ্গে জরুরি রাজ্যের কৃষ্টি, সংস্কৃতি আর অসাম্প্রদায়িক ঐতিহ্য বজায় রাখা। এটাই এবার তৃণমূলের নির্বাচনী ‘ব্রত’। তা পূরণ করার প্রথম ধাপ হিসেবে আজ, শুক্রবার বিধানসভা নির্বাচনের দলীয় প্রার্থীদের নাম প্রকাশ করতে চলেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল সূত্রের খবর, পাহাড়ের তিনটি কেন্দ্র (দার্জিলিং, কালিম্পং ও কার্শিয়াং) বাদে বাকি ২৯১টি আসনের প্রার্থীর নাম আজ ঘোষণা করা হবে। ‘বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়’ আর ‘সোনার বাংলা গড়ব’— দুই শিবিরের আপ্তবাক্যের দ্বৈরথপর্বে পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রাম আসন থেকেই ভোটে লড়বেন জোড়াফুল শিবিরের ‘কমান্ডার-ইন-চিফ’ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শিবরাত্রির দিন তিনি মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারেন। ইতিমধ্যেই নন্দীগ্রামে তৃণমূল সুপ্রিমোর ‘আস্তানা’ বাছাইয়ের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। বৃহস্পতিবার সেখানে পৌঁছেছে ভোটযুদ্ধের প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম। এদিনই কলকাতা পুরসভার ১২ নম্বর বরোর কোঅর্ডিনেটর সুশান্ত (স্বরূপ) ঘোষকে তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক পদে বসিয়ে শামিল করা হয়েছে  নন্দীগ্রামের নির্বাচন পরিচালনার টিমে। 
ভবানীপুর আসনে দীর্ঘদিনের সঙ্গী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়কে প্রার্থী করার পরিকল্পনা নিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। শোভনদেববাবুর বর্তমান কেন্দ্র রাসবিহারীতে প্রার্থী হতে পারেন কলকাতা পুরসভার প্রশাসক বোর্ডের সদস্য দেবাশিস কুমার। নাম থাকতে পারে আরেক সদস্য তারক সিংয়েরও।  মন্ত্রিসভার সদস্য পূর্ণেন্দু বসুর আসন এবার বদল হতে পারে। আজ (বামফ্রন্ট-কংগ্রেস-আইএসএফ) সংযুক্ত মোর্চাও প্রথম দু’দফা নির্বাচনের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করবে। বিজেপি এখনই সে পথে হাঁটছে না। টিকিট না পেয়ে তৃণমূলের কিছু ‘অতৃপ্ত আত্মা’ যে তাদের দিকে আসবে, সেই প্রতীক্ষা শুরু হয়েছে পদ্মশিবিরে।   
তৃণমূলের প্রার্থী তালিকায় এবার ঠাঁই পেতে চলেছেন এক ঝাঁক ‘তারকা’। সূত্রের খবর, টলিউডের বিশিষ্ট পরিচালক রাজ চক্রবর্তী, অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ, সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিনেতা সোহম চক্রবর্তী, ক্রিকেটার মনোজ তিওয়ারি এবং বিশিষ্ট কীর্তন শিল্পী অদিতি মুন্সির মতোই প্রার্থী হতে পারেন চন্দননগরের প্রাক্তন পুলিস কমিশনার হুমায়ুন কবীর সহ রাজ্যের কয়েকজন শীর্ষ আমলা। রয়েছে বিশিষ্ট দলিত সাহিত্যিক মনোরঞ্জন ব্যাপারীর নামও। নদীয়ার একটি আসন থেকে তাঁকে প্রার্থী করার পরিকল্পনা চলছে। বাঁকুড়ার তালডাংরা আসনে সমীর (বুয়া) চক্রবর্তীর পরিবর্তে প্রার্থী হতে পারেন অরূপ চক্রবর্তী। দলের তরুণ মুখ দেবাংশু ভট্টাচার্যেরও জায়গা হতে পারে তালিকায়। চা-বাগান বলয়ে বিজেপির সঙ্গে টক্কর নিতে ভূমিপুত্রদের নাম থাকছে তৃণমূলের প্রার্থী তালিকায়। সেখানে যেমন রয়েছেন তরাই-ডুয়ার্সের অবিসংবাদিত আদিবাসী নেতা রাজেশ লাকড়া ওরফে টাইগার, পার্সিং লামা, লিওস কুজুর, তেমনই আবার ফালাকাটা আসনের জন্য আছেন সুভাষ রায়ও।