স্পুটনিক ভি’র ট্রায়ালে ছাড়পত্র ডিসিজিআইয়ের

স্পুটনিক ভি’র ট্রায়ালে ছাড়পত্র ডিসিজিআইয়ের

অবশেষে ভারতের মাটিতে শুরু হতে চলেছে রাশিয়ার সম্ভাব্য করোনা টিকা ‘স্পুটনিক ভি’-এর ট্রায়াল। গত মাসেই এব্যাপারে অনুমতি দিয়েছিল ড্রাগ কন্ট্রোল জেনারেল অব ইন্ডিয়া (ডিসিজিআই)। কিন্তু পরবর্তী কালে অনুমোদন প্রত্যাহার করা হয়। শেষপর্যন্ত শনিবার রাশিয়ান ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড (আরডিআইএফ) এবং তাদের ভারতীয় অংশীদার হায়দরাবাদের ডক্টর রেড্ডি’স ল্যাবরেটরিজ লিমিটেডকে ট্রায়ালের ছাড়পত্র দিল ডিসিজিআই। মানবদেহে ট্রায়ালের চূড়ান্ত ধাপ পেরনোর আগেই বিশ্বের প্রথম ভ্যাকসিন হিসেবে ‘স্পুটনিক ভি’কে ছাড়পত্র দিয়েছে রাশিয়া। প্রথম থেকেই এই অভিযোগ উঠেছে। ভ্যাকসিনটি নিরাপদ কি না, তা নিয়েও ধন্দ কাটেনি। তবে সংযুক্ত আরব আমিরশাহি সহ অন্য কিছু দেশে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ আটকায়নি। ভারতেও শুরুতে সমস্যা হয়নি। কিন্তু পরে রাশিয়ায় প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল পর্যাপ্ত নয় জানিয়ে অনুমতি বাতিল করে ডিসিজিআই। দু’পক্ষের আলাপ আলোচনার পর এতদিনে মিটল সেই সমস্যা। আরডিআইএফ জানিয়েছে, ভারতে মানবদেহে ‘স্পুটনিক ভি’-র দ্বিতীয় এবং তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ হবে। চুক্তি অনুযায়ী, আপাতত দেড় হাজার স্বেচ্ছাসেবকের উপর ট্রায়াল চালাবে ডক্টর রেড্ডি’স। পরীক্ষা সফল হলে তারাই টিকার ছাড়পত্র, বণ্টনের দায়িত্ব সামলাবে। ভারতীয় সংস্থাকে ১০ কোটি ডোজ সরবরাহ করবে আরডিআইএফ। বর্তমানে ৪০ হাজার মানুষকে নিয়ে টিকার তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল চালাচ্ছে মস্কো। জানা গিয়েছে, করোনা মোকাবিলায় এর দু’টি ডোজই যথেষ্ট। ১৬ হাজার মানুষকে প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে।